আইডিয়া

পডকাস্টে পরিচিতি, ক্যারিয়ার ও অর্থ উপার্জন

রাকিমুন জয়া

প্রকাশিত: ১৭:৫২, ২৫ জুন ২০২২

পডকাস্টে পরিচিতি, ক্যারিয়ার ও অর্থ উপার্জন

পডকাস্টে পরিচিতি, ক্যারিয়ার ও অর্থ উপার্জন

পডকাস্ট একটি অডিও কন্টেন্ট। এই কন্টেন্টটি তৈরি করা হয় ভয়েস রেকর্ডিংয়ের  মাধ্যমে। যেকোনো বিষয়ের উপর পডকাস্ট তৈরি করা সম্ভব। এটি অনেকটা রেডিওর মতো। যেকোনো জায়গায় বসে এটি শোনা যায়।

পডকাস্টের মাধ্যমে যেকোনো বিষয়ে একটি কন্টেন্ট তৈরি করে তা নিজের ভয়েসে রেকর্ড করে ইন্টারনেটে আপলোড করা হয়। ইন্টারনেটে পডকাস্ট আপলোড করার কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হলো- anchor. fm, spotify. com, podbean. com, radiopublic. com ইত্যাদি। এছাড়াও ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ বা ওয়েবসাইটেও পডকাস্ট আপলোড করা যায়।

উদ্যোক্তাদের জন্য পডকাস্টের প্রয়োজনীয়তাঃ

উদ্যোক্তারা বিভিন্নভাবে পণ্য সংক্রান্ত কন্টেন্ট ক্রেতাদের সামনে উপস্থাপন করেন। পডকাস্ট তাদের জন্য একটা ভালো মাধ্যম হতে পারে। ফেসবুকে অডিও ফাইল আপলোড করা যায় না। সেক্ষেত্রে পণ্যের ছবি সম্বলিত একটি ভিডিও কিংবা স্লাইড শো'র সাথে ভয়েস রেকর্ডেড অডিও ফাইল সংযুক্ত করা যেতে পারে। এটাকে বলা হয় ভডকাস্ট। যাদের ওয়েবসাইট আছে তারা ওয়েবসাইটে সরাসরি পডকাস্ট আপলোড করতে পারবেন। পডকাস্টের সুবিধাজনক দিক হলো যেকোনো সময় যেকোনো জায়গায় বসে এটি শোনা যায় । অনেক সময় কন্টেন্ট পড়ার বা দেখার মতো সুযোগ ক্রেতাদের থাকে না। সেক্ষেত্রে পডকাস্টের মাধ্যমে তারা পন্য বিষয়ক তথ্য সম্পর্কে অবগত হতে পারে। শোনার মাধ্যমে যে তথ্যগুলো আমাদের মস্তিষ্কে গৃহীত হয় সেগুলোর প্রভাব দীর্ঘ সময় ধরে থাকে। কন্টেন্ট পড়তে পড়তে অনেক সময় একঘেয়েমি তৈরি হয় । পডকাস্টের মাধ্যমে এই একঘেয়েমি দূর করা সম্ভব। পডকাস্টের মাধ্যমে পন্যের বর্ননা শুনে ক্রেতা পন্যটিকে কল্পনা করেন। এই কল্পনাশক্তি তাকে কেনার সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করে। এভাবে পডকাস্ট উদ্যোক্তাদের জন্য তাদের টার্গেট ক্রেতার কাছে পৌঁছাতে এবং নিজের পন্যকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

পডকাস্ট তৈরি করার নিয়মঃ

পডকাস্ট তৈরির পূর্বে অবশ্যই একটি গোছানো, তথ্যবহুল স্ক্রিপ্ট তৈরি করতে হবে। এই স্ক্রিপ্ট দেখে পডকাস্ট রেকর্ড করলে পডকাস্টটি গোছানো ও সুন্দর হবে।

ভয়েস রেকর্ডিংয়ের জন্য একটি ভালো ডিভাইস, মাইক্রোফোন আবশ্যক। ভয়েস রেকর্ডিং এর সময় লক্ষ্য রাখতে হবে আশেপাশে যেন কোনো ধরনের শব্দ না থাকে। ব্যাকগ্রাউন্ড নয়েজ যত কম থাকবে পডকাস্টটি শুনতে তত ভালো লাগবে।

পডকাস্ট রেকর্ডিং এর সময় লক্ষ্য রাখতে হবে ভাষা যেন সুস্পষ্ট, মার্জিত ও বোধগম্য হয়। পডকাস্ট যত শ্রুতিমধুর হবে তত তা শ্রোতার উপর প্রভাব ফেলবে। 

পডকাস্ট রেকর্ডিংয়ের পর একটি ভালো এডিটর দিয়ে এডিট করে আপলোড করতে হবে। 

আমেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে পডকাস্টের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। পডকাস্টের মাধ্যমে নিজের পরিচিতি তৈরি, ক্যারিয়ার গঠন ও অর্থ উপার্জনের ও সুযোগ রয়েছে যদি কেউ এটিকে গুরুত্ব সহকারে নিয়ে চর্চা করেন।
 

সিনথিয়া

সর্বাধিক জনপ্রিয়