বিজনেস

হঠাৎ সিদ্ধান্তে ব্যবসার কাজের ভয়ংকর পরিণতি  

জান্নাতুল ফেরদৌস 

প্রকাশিত: ১৯:৩৪, ১৭ আগস্ট ২০২২

হঠাৎ সিদ্ধান্তে ব্যবসার কাজের ভয়ংকর পরিণতি  

হঠাৎ সিদ্ধান্তে ব্যবসার কাজের ভয়ংকর পরিণতি  

বিজনেস এমন একটা ক্ষেত্র যেখানে তাড়াহুড়ো করে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলো অনেক সময়ই কাজের নেগেটিভ ফলাফল নিয়ে আসতে পারে।এমনকি বাস্তবজীবনেও এই হঠকারিতা একটা সুন্দর ভবিষ্যৎকে নষ্ট করে মানুষকে বিপদগামী করে তোলার ক্ষমতা রাখে।

তাই একজন উদ্যোক্তা যখন বিজনেসে আসেন তখন তাকে হতে হয় ঠান্ডা মাথার অধিকারী।কারণ উদ্যোক্তার একটা ভুল সিদ্ধান্ত পুরো বিজনেসটাকেই মাটিতে পিষে ফেলতে পারে।নিজের ক্ষতি না চাইলে অবশ্যই উদ্যোক্তার মানসিক স্থিতি ধরে রাখার প্রয়োজন পড়বে।

বিজনেসে এমন পরিস্থিতিও আসতে পারে যখন উদ্যোক্তারা চরম বিপদে আর কোনো কুলকিনারা খুঁজে পান না।অথচ সামনে এমন অবস্থা যখন তাকে অন্যায়ের হাত ধরেই বাঁচার চেষ্টা করতে হবে।এরকম সঙ্গীণ মুহূর্তে উদ্যোক্তাদের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া একটু কঠিন হয়ে যেতে পারে।তখনো উদ্যোক্তাদের উচিত হবে নিজের বুদ্ধিকে কাজে লাগানো এবং অন্যায়ের সাথে আপোষ না করা।

আমাদের দেশে মানুষের স্বভাব দিন দিন পাল্টে যাচ্ছে।মানুষের মাঝে অস্থিরতা,নীতিবিরোধী,অস্থিতিশীলতা,হঠকারী ইত্যাদি নেতিবাচক আচরণের প্রকাশ ঘটছে।সৃজনশীল কাজের চর্চা থেকে দূরে থাকার ফলে মানুষ এখন ভেবেচিন্তে কাজ করার ক্ষমতা হারাচ্ছে।

উদ্যোক্তারাও এর ব্যতিক্রম নন।বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রকমের ঝামেলা,ভেজালের শিকার উদ্যোক্তারাও হন।কিন্তু তারপরও তাদেরকে সবকিছু সামলে নিয়ে বিজনেসে নিজের এগিয়ে যাওয়ার রাস্তাটা একটু একটু করে পরিষ্কার করে নিতে হয়।

একটা অতি সাধারণ উদাহরণ দেই।ধরুন আপনি একজন নিয়মিত উদ্যোক্তা হয়ে আজকে কোনো কারণছাড়াই হুট করে চিন্তা করলেন যে আগামী কিছুদিন বিজনেসে এক্টিভ থাকবেন না।সোশ্যাল সাইট থেকে বিদায় নিয়ে রেস্ট নিবেন,নিজের যত্ন নিবেন।নিজের যত্ন নিতে চাওয়া খুব ভালো কথা ঠিকই।কিন্তু এই যে আপনি একেবারে নিজের কাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত টা নিলেন তাও কয়েকদিনের জন্য,এটা কি ঠিক হলো??

এখন কোনো কাস্টমার পণ্য নিতে এসে আপনাকে নক দিয়ে যদি রেসপন্স না পায় কিংবা আপনার প্রোফাইলে পণ্য নিয়ে নিয়মিত লেখা আর না দেখে তখন আপনি স্বাভাবিকভাবেই অসংখ্য কাস্টমার হারাবেন,যা আপনার বিজনেসের জন্য ক্ষতিকর।

কিশোর ক্লাসিকস সিরিজে অসংখ্য গল্প আছে,যেগুলোতে হঠকারিতার বশে করা কাজের পরিণতি যে কতটা ভয়াবহ হতে পারে তার উদাহরণ দেওয়া আছে।এদের মধ্যে আমরা একটা গল্পের কথা বলি আজ।এটা হচ্ছে 'বাউন্টিতে বিদ্রোহ' গল্পের সিক্যুয়েল 'পিটকেয়ার্নস আইল্যান্ড'। 

পিটকেয়ার্নস আইল্যান্ডে দেখা যায় বাউন্টি জাহাজে কাজ করতে আসা নাবিকেরা জাহাজটির ক্যাপ্টেনের অতিরিক্ত কঠোরতায় বিদ্রোহী মনোভাব পুষে রাখতো।তবে পরিস্থিতি আসলেই তখন সঙ্গীণ ছিল।নাবিকদের বাঁচাতেই ক্যাপ্টেন ব্লাইকে খাবারের পরিমাণ কমিয়ে দিতে হয়েছিল।তবে এ কথাও ঠিক যে ক্যাপ্টেন ব্লাই নাবিকদের সাথে ব্যবহারে আরেকটু নমনীয় হতেই পারতেন।

যাই হোক,জাহাজের অফিসার ক্রিশ্চিয়ান একদিন সকালে হুট করেই কয়েকজন নাবিকদেরকে নিয়ে বিদ্রোহ ঘোষণা করে ফেলে। তাদের এই অনাকাঙ্ক্ষিত হঠকারিতার বশে নেওয়া সিদ্ধান্তটি যে জাহাজের প্রতিটা নাবিকের জীবনে অভিশাপ বয়ে এনেছিল,তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

ক্রিশ্চিয়ান তার সঙ্গীদের নিয়ে জীবন রক্ষার তাগিদে শুরুতে একটা নতুন দ্বীপ খুঁজে পায়।সেখানে কিছুদিন থাকার পরে আবার একটা দ্বীপে সবাইকে নিয়ে যায়।কেননা বিদ্রোহ করে দেশে ফেরা মানে নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মারা।ঘুরতে ঘুরতে একসময় তারা পিটকেয়ার্নস আইল্যান্ড নামের একটা বেনামি দ্বীপ পায় আর নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকায় এখানেই বাকি জীবন কাটানোর সিদ্ধান্ত নেয় ওরা।

অনেক কষ্টেসৃষ্টে বেঁচে থাকতে হয় তাদের।ক্রিশ্চিয়ান যদি সেদিন বিদ্রোহ না করতো তাহলে জাহাজের প্রতিটা নাবিক নিজেদের জীবনে যে দুর্ভোগ সহ্য করেছে তা তাদেরকে করতে হতো না।কেননা নিজেদের দেশে পৌঁছানোর সময়টা তখন যথেষ্ট ভালো ছিল।

উদ্যোক্তারাও যদি নিজেদের বিজনেসে পণ্যের সোর্সিং কিংবা ফটোগ্রাফি অথবা পণ্যের কোয়ালিটি এরকম কোনো কাজে হঠকারী হয়ে সিদ্ধান্ত নেন তাহলে বিজনেসে এর মারাত্মক প্রভাব পড়বে।যা কি না উদ্যোক্তার সর্বনাশ করে দিবে।

প্রতিটা কিশোর ক্লাসিকসই উদ্যোক্তাদের জন্য কোনো না কোনো সমস্যার সমাধান দিয়ে থাকে।বইয়ে পড়া চরিত্র আমাদের মাথায় সারাক্ষণ ঘুরতে থাকে সবাই জানি।আপনি যখন উদ্যোক্তা হয়ে নিয়মিত কিশোর ক্লাসিকস পড়বেন,তখন আপনার মাথাতেও চরিত্রের মেলা বসবে।

আর নিয়মিত গল্পগুলো পড়ার কারণে উদ্যোক্তারা সঠিক এবং ভুল কাজের মধ্যে পার্থক্য খুঁজে পাবে।যার ফলে নিজেদেরকে সকল ধরনের পরিস্থিতি মোকাবেলায় সচেতন এবং সমর্থবান করে গড়ে তুলবে।আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো - কোনো কাজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে দশবার ভেবে কাজ করার অভ্যাস করতে হবে।নইলে হঠকারী স্বভাব হলে তা উদ্যোগের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

লেখকঃ ফ্রিল্যান্সার লেখক ইপ্রফিট এবং শিক্ষার্থী (মুমিনুন্নিসা সরকারি মহিলা কলেজ, ময়মনসিংহ) 

সিনথিয়া

সর্বাধিক জনপ্রিয়