বিজনেস

ব্যবসায় টেকসই মার্কেটিং ব্যবস্থা 

আফসানা আফতাব

প্রকাশিত: ২০:২৪, ১৭ আগস্ট ২০২২

ব্যবসায় টেকসই মার্কেটিং ব্যবস্থা 

ব্যবসায় টেকসই মার্কেটিং ব্যবস্থা 

বাজারে টিকে থাকতে হলে টেকসই মার্কেটিং ব্যবস্থার দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে। টেকসই মার্কেটিংকে আবার গ্রীন মার্কেটিং বলা হয়ে থাকে।

অর্থাৎ আপনি যে পণ্যটি বাজারে পরিচালিত করছেন তা পরিবেশ, সমাজ এবং অর্থনৈতিক ভাবে কতটা গুরুত্বপূর্ণ। সহজ কথায় আপনার কোম্পানির পণ্যটি যে ক্রয় করছে তা কোথায় কিভাবে ব্যবহার হতে পারে এবং এতে কোন পরিবেশগত বিপর্যয় আছে কিনা এদিকগুলো বিবেচনা করে মার্কেটিং পরিচালনা করা। এক্ষেত্রে ফিলিপ কটলারের একটি গুরুত্বপূর্ণ উক্তি রয়েছে। তিনি বলেছেন ---

"The concept of sustainable marketing holds that an organisation should meet the needs of It's present consumers without compromising the ability of future generations fulfil their won needs"

অর্থাৎ আপনারা বিপণনের ক্ষেত্রে অবশ্যই ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা চিন্তা করতে হবে।

টেকসই মার্কেটিং মূলত পাঁচটি কৌশলকে কেন্দ্র করে হয়ে থাকে যেমনঃ

1. Consumer - oriented marketing. 
2. Customer - value marketing. 
3. Innovation marketing. 
4. Sense of mission marketing. 
5. Societal marketing. 

এই পাঁচটি কৌশলকে কেন্দ্র করেই একটি টেকসই মার্কেটিং ব্যবস্থা তৈরি করা যেতে পারে। একটি জরিপে দেখা গিয়েছে ৬২% ক্রেতা পণ্য কেনার সময় লক্ষ্য করেন কোম্পানির Sustainability কি। আপনার পণ্য ক্রেতার কাছে কি ধরনের ইম্পেক্ট ফেলবে তার উপর নির্ভর করে কোম্পানির সাফল্য। কয়েক দশকে এনিয়ে অনেক বিতর্ক থাকলেই বর্তমানে কোম্পানিগুলো নিজেদের টেকসই মার্কেটিং এর দিকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন। 

যদি এখানে আমি ছোট করে উদাহরণ দেই তাহলে খেশ পণ্যের কথা বলতে পারি। কারন একটি রিসাইক্লিং পণ্য হিসেবে তা কখনও এমন কোন অভাব সৃষ্টি করবে না যা আগামী প্রজন্মের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াবে এবং পরিবেশের জন্য বিপর্যয় ডেকে নিয়ে আসবে।
 

সিনথিয়া

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বাধিক জনপ্রিয়