ই-কমার্স

এফ-কমার্সে মিষ্টির চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা

মোঃ দেলোয়ার হোসেন।

প্রকাশিত: ১৯:০৫, ৬ আগস্ট ২০২২

এফ-কমার্সে মিষ্টির চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা

এফ-কমার্সে মিষ্টির চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা

ফেসবুকের কল্যাণে দেশের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে থাকা পণ্যগুলো পরিচিতি পাচ্ছে সর্বত্র। পরিচিতির সাথে হচ্ছে বিক্রিও। একদম অজানা শেরপুরের তুলশীমালা চাল, রংপুরের শতরঞ্জি মতো অগণিত পণ্য এখন লাখ লাখ মানুষের কাছে বেশ পরিচিত।  এসব পণ্যগুলো স্ব স্ব অঞ্চলে পরিচিত ও প্রচলিত হলেও দেশব্যাপী ছিল না তেমন পরিচিতি।

অগণিত পণ্য উঠে এসেছে গত দুই বছরে। এরমধ্যে শাড়ি, ঘরের তৈরি খাবার এবং আঞ্চলিক মিষ্টির পরিচিতি এগিয়ে। তাই এগুলোর প্রচারণায় পাচ্ছে ভিন্ন মাত্রা। কেবল মিষ্টির কনটেন্ট বাড়াতে শুরু হয়েছে “শুধুই মিষ্টি” নামক গ্রুপ। আবার শুধু খাদি পোশাকের কনটেন্ট বাড়াতে করা হয়েছে “খাদিবিডি” গ্রুপ। এভাবে রয়েছে খেশের জন্য “খেশ” গ্রুপ। এসব গ্রুপগুলো দেশি পণ্যের প্রচারণায় যুক্ত করেছে ভিন্ন মাত্রা।

দেশি পণ্যের প্রচার এবং ব্যবহার বাড়ার কারণে অগণিত সুবিধার পাশাপাশি সৃষ্টি হয়েছে কিছু অসুবিধাও।

১. কনটেন্টের অভাব : দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে উৎপাদন হওয়া বেশিভাগ মিষ্টির ইতিহাস খুবই সমৃদ্ধ। এসব মিষ্টির রয়েছে অগণিত প্রসংশা। যেমন, মানিকগঞ্জের হাজারি গুড়ের প্রসংশা করেছেন রানি এলিজাবেথ। মন্ডা খেয়ে মুগ্ধ হয়েছিলেন ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধি, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু। এভাবে সমৃদ্ধ হয়েছে আঞ্চলিক মিষ্টিগুলোর ইতিহাস। কিন্তু এসব মিষ্টি নিয়ে পর্যাপ্ত তথ্যের অভাবে দেশের বেশিভাগ মানুষের কাছেই অপরিচিত। তাই আঞ্চলিক ক্রেতা আর ভ্রমণকারীদের মধ্যেই ছিল মিষ্টির বাজার।

ইন্টারনেটের কারণে মিষ্টির বাজার বড় হয়েছে দেশব্যাপী। ডেলিভারি হচ্ছে সর্বত্র। তাই বহুমূখী কনটেন্টের মাধ্যমে বাজার চাহিদা বাড়ানো যাবে। কনটেন্টের মাধ্যমে যেকোন জেলার পণ্যের পরিচিতি ও  খুব সহজে সকলের কাছে তুলে ধরা যাবে এসব পণ্য।

২. ডেলিভারি জটিলতা : অতীতের যেকোন সময়ের তুলনায় আঞ্চলিক মিষ্টিন্নগুলোর প্রচার ও ব্যবহার বেড়েছে। নিয়মিতই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে রাজধানীতে আসছে এসব মিষ্টি। অসুবিধা হয়ে দাঁড়ায় ক্রেতার হাতে অক্ষত অবস্থায় পৌঁছেতে। আবার কিছু কিছু সময় তুলনামূলত বেশি চার্জ ব্যয় করতে হয়। তবে মিষ্টির নিরাপদ ডেলিভারি নিশ্চিত করতে রাজধানীকে কয়েকটা ভাগে ভাগ করা যায় এবং সে অনুযায়ী সপ্তাহের নির্দিষ্ট দিনে ডেলিভারি করা যায়। এতে করে খুব সহজে নিরাপদ ডেলিভারি নিশ্চিত করা যাবে।

৩. অগণিত কাস্টমার : ই-কমার্স বা এফ-কমার্স ব্যবসাগুলোর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো অগণিত কাস্টমার পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। সব এলাকা থেকে সমান ভাবে কাস্টমার পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে ই-কমার্সে। এ সুবিধা কাজে লাগাতে কনটেন্টের মাধ্যমে আগাতে হবে উদ্যোক্তাদের।

লেখকঃ ফ্রিল্যান্সার লেখক ইপ্রফিট এবং স্বত্বাধিকারী, আওয়ার শেরপুর ডটকম।

সিনথিয়া

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বাধিক জনপ্রিয়